ইন নাম্বারঃ ১১১৩৪২
মাদরাসা কোডঃ ১২১৯৪
কেন্দ্র কোডঃ ১৯৯
জেলা কোডঃ ২১
থানা কোডঃ ১২১

সর্বশেষ নোটিশ

প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস

সকল প্রসংশা বিশ্ব প্রতিপালক মহান আল্লাহর জন্য, বিশ্ব মানবতার প্রতি যার প্রথম নির্দেশ ”পড়”। দুরুদ ও সালাম বর্ষিত হোক বিশ্বনবী মুহাম্মদ(সাঃ) এর প্রতি, যিনি বিশ্ব মানবতার জন্য শিক্ষক হিসেবে প্রেরিত হয়েছেন।

ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলাধীন খুর্দ্দ গ্রাম নিবাসী বিশিষ্ট শিক্ষনুরাগী ও আলেমে দ্বীন মরহুম মাওলানা আলা উদ্দিন(রহঃ) এর স্বপ্নে প্রাপ্ত নির্দেশনার মাধ্যমে সমাজের নিঃস্ব, অসহায়, অবহেলিত ও এতিমদের পুনর্বাসন ও দ্বীনি শিক্ষার পথ সুগম করতে স্থানীয় হবিরবাড়ী ও মেহেরাবাড়ী গ্রামের শিক্ষানুরাগী, সমাজ সচেতন,নেতৃত্বদান কারী লোকের সহযোগীতার মাধ্যমে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহা-সড়ক সংলগ্ন রাস্তার পশ্চিম পার্শ্বে আম কাঠালের ছায়ায় ঘেরা মনোরম পরিবেশে ছোট একটি মাটির ঘরে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলাধীন হবিরবাড়ী গ্রামে”হবিরবাড়ী ও মেহেরাবাড়ী কাওমী মাদরাসা ও এতিমখানা” নামে ১৯৮৩ সালে একটি দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানস্থাপন করেন। পরবর্তীতে স্থানীয় চাহিদা ও এতিমদের স্বনির্ভর করার লক্ষ্যে দ্বীনি শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষার পথ সুগম করতে মাওলানা আলা উদ্দিন(রহঃ) এর সুযোগ্য সন্তান মাওলানা মোঃ মিজানুর রহমান স্থানীয় লোকজনকে সাথে নিয়ে ১৯৮৬ সনে”হবিরবাড়ী বাহারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা” নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করেন।

মাদরাসাটি-০১-০১-১৯৯১ তারিখ হতে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড,ঢাকা থেকে দাখিল ৯ম শ্রেণী প্রাথমিক পাঠদান অনুমতি এবং-০১-০১-১৯৯৪ তারিখ হতে একাডেমিক স^ীকৃতি লাভ করে-০১-০৫-১৯৯৫ তারিখ হতে প্রথম এমপিও ভুক্ত হয়। মাদরাসাটিতে-০১-০১- ২০০২ তারিখ হতে বিজ্ঞান শাখা এবং ০১-০১-২০০৪ তারিখ হতে কম্পিউটার শিক্ষা শাখা খোলা হয়।মাদরাসাটি-০১-০৭-২০১১তারিখ হতে আলিম সাধারণ বিভাগ খোলার প্রাথমিক পাঠদান অনুমতি লাভ করে। বর্তমানে মাদরাসাটিতে প্রায় ৬০০(ছয়) শত ছাত্র/ছাত্রী অধ্যয়ন করছে।মাদরাসার অবকাঠামো,ঘর, আসবাবপত্র, প্রস্স্থ খেলার মাঠ ও যাতায়তের সুবিধাসহ লেখাপড়ার যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা বিদ্যমান আছে। লেখাপড়ার মান, পরীক্ষার ফলাফল ও বৃত্তি প্রাপ্তিতে ইতিমধ্যেই মাদরাসাটি সাধারণ মানুষের অন্তর জয় করতে সক্ষম হয়েছে।

অত্র মাদরাসা প্রতিষ্ঠায় যারা অবদান রেখে দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়েছেন তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করছি আর যাঁরা জীবিত আছেন এবং সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তাঁদের দীর্ঘায়ু কামনা করছি